ব্রাশ ভরে টুথপেস্ট ব্যবহারে ক্ষতি

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ মুখের সুস্থতায় নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করার বিকল্প নেই। আমেরিকান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশন (এডিএ) অনুযায়ী, দাঁত মাজার আদর্শ রুটিনের মধ্যে রয়েছে দিনে দুবার দুই মিনিটের জন্য ব্রাশ করা। এছাড়া প্রতিদিন একবার ‘ফ্লসিং’ করা।

নিয়মিত ব্রাশ করা ক্যাভিটির বিরুদ্ধে কাজ করে। এর জন্য মনে হতে পারে যত বেশি টুথপেস্ট ব্যবহার করা হবে, তত ভালো। তবে তা সবক্ষেত্রে সঠিক নয়। পুরো ব্রাশ জুড়ে টুথপেস্ট নিয়ে ব্যবহার করা প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটা বেশি।

‘আমেরিকান বোর্ড অব পেরিওডন্টোলজি’র দাঁত বিশেষজ্ঞ ও কুশলী স্কট এইচ ফ্রোয়াম ওয়েলঅ্যান্ডগুড ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলেন, “প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য আদর্শ পরিমাণ টুথপেস্ট হল একটি মটর দানার সমান। আর শিশুর জন্য এটি প্রায় একটি ধানের দানার আকারের সমান।”

অতিরিক্ত টুথপেস্ট ব্যবহার মুখের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে যা অনেকেরই অজানা। এর পেছনে কয়েকটি কারণ রয়েছে বলে জানান তিনি। মুখের ভেতরে খুব বেশি ফেনা সৃষ্টি দাঁত ও মুখ গহব্বর পরিষ্কারে ঝামেলার সৃষ্টি করে। প্রতিবার ব্রাশ করার সময় উন্নত মানের পেস্ট পরিমিত পরিমাণে ব্যবহার করা হলে তা দাঁত পরিষ্কারের পাশাপাশি মুখের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। চুল পরিষ্কার করার সময় খুব বেশি শ্যাম্পুর ফেনা যেমন চুলকে শুষ্ক করে ফেলে, দাঁতের ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত ফেনা একই কাজ করে।

‘ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া সান ফ্রান্সিসকো’র অনুযায়ী টুথপেস্ট ব্যবহার সম্পর্কে ঐচ্ছিক আচরণের আরেকটি কারণ হল দাঁতের ক্ষয় রোধ করা। দাঁতের ক্ষয়রোধের জন্য ফ্লোরাইড অপরিহার্য। তার মানে এই নয় যে, এর অতিরিক্ত গ্রহণ করতে হবে।

২০২০ সালে ‘সায়েন্স সিগনালিং’য়ে প্রকাশিত ‘নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটি কলেজ অফ ডেন্টিস্ট্রি’র করা সমিক্ষায় থেকে জানা যায়, অতিরিক্ত ফ্লোরাইডের কারণে দাঁতের এনামেলের বিক্রিতি ঘটতে পারে। আর দশ বছর বয়সিদের ক্ষেত্রে তা বিষক্রিয়ার স্তরেও পৌঁছাতে পারে।” তবে মাঝে মধ্যে বেশি পেস্ট ব্যবহার তেমন ক্ষতিকারক নয়। তবে অভ্যাস গড়ে তুলতে এর সঠিক পরিমাণ সম্পর্কে ধারণা থাকা প্রয়োজন বলে জানান, ডা. ফ্রোয়াম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *