ত্বকের যত্নে ভাতের মাড়ের উপকারিতা

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ ভাতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও খনিজ উপাদান ত্বকের নানান সমস্যা দূর করে। সামান্য কিছু উপাদানের সঙ্গে ভাতের মাড় মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে ব্যবহার করা ত্বকের ক্লান্তিভাব, বলিরেখা ও দাগ ছোপ কমাতে সহায়তা করে।

উপকরণ: ভাতের মাড়, সামান্য ভাত, সারা রাত ভেজানো কয়েকটা কাঠ-বাদাম, রেড়ির তেল, অ্যালো ভেরার জেল ও টক দই।

তৈরি পদ্ধতি: ভাতের মাড়, ভাত ও খোসা ছাড়ানো ভেজানো কাঠ-বাদাম একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। একটা পাত্রে তা তুলে নিয়ে এর সঙ্গে এক চা-চামচ টক দই, এক চা-চামচ অ্যালো ভেরার জেল ও আধা চা-চামচ রেড়ির তেল যোগ করে নিতে হবে।

ব্যবহার পদ্ধতি: মুখ ভালো মতো ধুয়ে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এই ফেইস প্যাকটা মেখে নিতে হবে। ২০ মিনিট অপেক্ষা করে হালকা মালিশ করে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে করে লোমকূপ পরিষ্কার হবে, মৃতকোষ দূর হবে এবং সতেজভাব ফুটে উঠবে। সব শেষে ত্বকে ময়েশ্চারাইজ ব্যবহার করে নিতে হবে। ফলে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

উপকারিতা

ভাত ও ভাতের মাড় ত্বকের রোদপোড়াভাব, বলিরেখা ও দাগ ছোপ কমায়। টক দই ত্বকের মৃতকোষ দূর করে ও দাগ ছোপ কমায়। অ্যালো ভেরার জেল ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে, বলিরেখা কমায় ও সতেজভাব আনে। রেড়ির তেল ত্বকের গভীরে গিয়ে কোলাজেনের পরিমাণ বাড়ায় ফলে ত্বক ও তারুণ্যময়। এই প্যাক ব্যবহারে সারাদিনের ক্লান্তিভাব দূর হবে ও সকালে দেখতে সতেজ লাগবে।

তাছাড়া যাদের ত্বকে দাগছোপ, কালচেভাব, বলিরেখা, রোদপোড়া দাগ এমনকি ব্রণের দাগ রয়েছে তারাও নিয়মিত এই প্যাক ব্যবহারে উপকৃত হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.